• ২০ আশ্বিন১৪২৯  - বুধবার, অক্টোবর ৫, ২০২২

‘যারা অন্যের আনুকূল্যে টিকে থাকে, তাদের দেশ শাসন করার অধিকার নেই’

‘যারা অন্যের আনুকূল্যে টিকে থাকে, তাদের দেশ শাসন করার অধিকার নেই’

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, যারা অন্যের আনুকূল্যে টিকে থাকে তাদের দেশ শাসন করার অধিকার নেই বলে।

শনিবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত মানববন্ধনে অংশ নিয়ে তিনি এ কথা বলেন। বিদ্যুতের লোডশেডিং, তেল ও নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্যবৃদ্ধি এবং রাজনৈতিক দমন-পীড়নের প্রতিবাদে ইউট্যাব এ কর্মসূচির আয়োজন করে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, তার প্রমাণ তারা একে একে দিয়ে যাচ্ছে। দেশের মানুষ যুদ্ধ করে নিজেদের স্বাধীন করেছে এবং নিজেদের স্বাধীন বলে পরিচয় দিতে গর্ব বোধ করে তখন আওয়ামী লীগের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ভারত সরকারকে বলেন, সাহায্য করবেন শেখ হাসিনাকে টিকিয়ে রাখার জন্য। অর্থাৎ তারা এ কথা বলতে চান যে, ভারত সরকারের আনুকূল্যে এই সরকার টিকে আছে। আমি কালকেও তাদের বলেছিলাম, এটা ব্যাখ্যা আমরা জানতে চাই। পররাষ্ট্রমন্ত্রী কিন্তু তার জায়গা থেকে সরে আসেননি। তিনি একটি বক্তব্য দিয়েছেন এবং সেই বক্তব্যে তিনি আবারও ওটাই নিশ্চিত করেছেন।

সুতরাং আমাদের বুঝে নিতে হবে, পরিষ্কার ভাষায় বলতে হবে যারা অন্যের আনুকূল্যে টিকে থাকে তাদের এ দেশ শাসন করার কোনো অধিকার নেই। তাদের এ দেশের সরকারে যাওয়ার কোনো অধিকার নেই, বলেন বিএনপি মহাসচিব।

তিনি আরও বলেন, আমাদের সব কিছুর সংকটের মূলে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আছে। আওয়ামী লীগ জোর করে, বিনা ভোটে, নির্বাচিত না হয়ে শুধুমাত্র রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করে তারা আজকে ক্ষমতা দখল করে বসে আছে। জনগণকে সঙ্গে নিয়ে পাকিস্তান হানাদার বাহিনীকে সরিয়েছিলাম, নব্বইয়ের অভ্যুত্থানে যেভাবে স্বৈরাচারকে সরানো হয়েছিল, এখন আমাদের দায়িত্ব জনগণকে সঙ্গে নিয়ে বাংলাদেশ ধ্বংসকারী এই ফ্যাসিস্ট সরকারকে সরিয়ে একটা সত্যিকার অর্থে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, তারা আমাদের আত্মাকে ধ্বংস করছে। আমাদের একটি গণতান্ত্রিক আত্মা ছিল, স্বপ্ন ছিল মুক্ত সমাজ সমৃদ্ধ বাংলাদেশ। আমাদের সেই স্বপ্নগুলোকে ধূলিস্যাৎ করেছে। এজন্য আওয়ামী লীগকে অবশ্যই ইতিহাসের কাঠগড়ায় দাঁড়াতে হবে। তাদের জবাবদিহি করতে হবে।


অন্যান্য
ভ্রমন