• ১৫ অগ্রহায়ণ১৪২৯  - মঙ্গলবার, নভেম্বর ২৯, ২০২২

আলোকিত হৃদয় পুলকিত জীবন

আলোকিত হৃদয় পুলকিত জীবন

প্রতিটি মানুষেরই হৃদয় আছে, কোনোটি আলোকিত আবার কোনোটি অন্ধকারে কলুষিত। হৃদয় মানুষকে ইতিবাচক বা নেতিবাচক পথে পরিচালিত করে। যে হৃদয়ে আলো নেই সে হৃদয় সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে সত্য ন্যায় ও কল্যাণের পথে চালাতে পারে না।

মানুষকে মন্দপথে, অন্যায় অবিচারে, মিথ্যা শঠতা, অমানবিকতা, লোলুপতা, স্বার্থপরতা, অবিচার সর্বোপরি হিংস্রতার পথে পরিচালিত করে। আবার যে হৃদয় হেদায়েতের আলোয় আলোকিত সে হৃদয় সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে ইহকালীন যাবতীয় কল্যাণ ও সমৃদ্ধির পথে পরিচালিত করে।

মানবকল্যাণে, সমাজকল্যাণে, জাতি ও রাষ্ট্রের কল্যাণে তাকে উদ্বুদ্ধ করে। ইহকালীন ও পরকালীন জীবনে আলোকিত হৃদয়ের মানুষটির জীবনখানি বেশ সুখময় হয়। জীবনের সুখময়তাই পুলকিত জীবন। আল্লাহর নুর মানুষের হৃদয়কে আলোকিত করে। ইমানের নুর, কুরআনের নুর, তাকওয়ার নুর কেবল কলব বা হৃদয়কে নয় বরং দেহমনকেও আলোকিত ও ঝলকিত করে।

সব নুরের আধার স্বয়ং আল্লাহ রাব্বুল আলামিন। তাঁর জাতেপাকই নুর। পৃথিবীর বুকে যত মানুষ হেদায়েত তথা সুপথপ্রাপ্ত হয়েছে, এসবের পেছনেই মহান জাতেপাকের নুরের প্রভাব। কোনো ব্যক্তির অন্ধকারসম কলুষিত হৃদয় যখনই নুর তথা হেদায়েতের ছোঁয়া পায় তখনই তা আল্লাহর ইচ্ছা ও বিশেষ অনুগ্রহে পরিবর্তন হয়ে যায়। যার ওই ব্যক্তির হৃদয় নুরের তথা হেদায়েতের আলোয় আলোকিত হয়।

সে পরম মহাসত্যের সন্ধান পেয়ে তা গ্রহণ করে নিজে ধন্য হয়। এ প্রসঙ্গে কুরআন মাজিদে বর্ণিত হয়েছে, অবশ্যই আল্লাহর কাছ থেকে এক জ্যোতি ও স্পষ্ট কিতাব তোমাদের কাছে এসেছে যারা আল্লাহর সন্তুষ্টির অনুসরণ করে, এ দ্বারা তিনি তাদের শান্তির পথে পারিচালিত করেন এবং তাদের নিজ অনুমতিক্রমে অন্ধকার থেকে বের করে আলোর দিকে নিয়ে যান। আর তাদের সরল পথের দিশা দেন। (সূরা মায়েদা : আয়াত- ১৫-১৬)।

আল্লাহপাক আরও ইরশাদ করেন, আল্লাহ্ তাদের অভিভাবক যারা ইমান আনে, তিনি তাদের অন্ধকার থেকে বের করে আলোতে নিয়ে যান। আর যারা কুফরি করে তাগুত তাদের অভিভাবক, এরা তাদের আলো থেকে অন্ধকারে নিয়ে যায়। তারাই আগুনের অধিবাসী, সেখানে তারা স্থায়ী হবে। (সূরা বাকারা : আয়াত-২৫৭)।

লেখক : মুহাদ্দিস, নোয়াখালী কারামাতিয়া কামিল মাদ্রাসা, সোনাপুর, সদর, নোয়াখালী


ভ্রমন