•  জ্যৈষ্ঠ১৪২৯  - সোমবার, মে ২৩, ২০২২

ক্ষমতার আস্ফালন দেখিয়ে বিজয়ী হওয়া যায় না: ওবায়দুল কাদের

ক্ষমতার আস্ফালন দেখিয়ে বিজয়ী হওয়া যায় না: ওবায়দুল কাদের

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ক্ষমতার আস্ফালন নয়, দেশের জনগণকে ভালবাসতে হবে। ক্ষমতার আস্ফালন বন্ধ করতে হবে। কেন না ক্ষমতার আস্ফালন দেখিয়ে বিজয়ী হওয়া যায় না। জনগণ যাকে ভালোবাসে তার স্লোগানের প্রয়োজন হয় না। শুধু স্লোগান আর নেতাগিরিতে কাজ হয় না। বিএনপি ক্ষমতার আস্ফালন করতো। এখনও তারা আস্ফালন করে। এখনও আওয়ামী লীগকে বিএনপি ভয় দেখাচ্ছে। কারণ তারা সাম্প্রদায়িক শক্তির সঙ্গে আঁতাত করে আবার সহিংসতার রাজনীতি ও আগুন সন্ত্রাস করতে চায়।

রোববার নাটোরের শংকর গোবিন্দ চৌধুরী স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনের প্রথম অধিবেশনে ভার্চুয়ালি যোগ দিয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপিকে হুশিয়ার করে ওবায়দুল কাদের, শান্তির ভাষায় কথা বলুন। অশান্তি করতে চাইলে, জনগণকে সঙ্গে নিয়ে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে শক্ত জবাব দেওয়া হবে।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নে সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। দেশের উন্নয়ন অব্যাহত থাকলে আর নেতাকর্মীরা সাধারণ মানুষকে ভালোবাসলে আগামী জাতীয় নির্বাচনেও আওয়ামী লীগের বিজয় সুনিশ্চিত।

তিনি আরো বলেন, চলতি বছরই দেশে অনেকগুলো মেগা প্রজেক্টের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী। এসব উন্নয়নের সুফল শিগগিরই জনগণ পেতে শুরু করবে। সদ্য সমাপ্ত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৭৫ ভাগ মানুষ ভোট দিয়েছে। নির্বাচন নিয়ে কিছু বিশৃঙ্খলা হয়েছে যা সরকারের ভাবমূর্তি নষ্ট করেছে। বিশৃঙ্খলা ও সহিংসতা না হলে ভোটার উপস্থিতি আরও বাড়তো। অথচ যারা নির্বাচনে বিশৃঙ্খলার বিরুদ্ধে কথা বলে তারা গত দুই দশকে এতো বেশি ভোটার উপস্থিতির নির্বাচন দেখাতে পারবেন না।

ওবায়দুল কাদের দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, যারা দলের বিরুদ্ধে ইউপি নির্বাচনে বিদ্রোহের মাধ্যমে দলীয় শৃঙ্খলা ও ঐক্য বিনষ্ট করে দলকে ছোট করেছেন, তাদের সবার তালিকা তৈরি হয়েছে।  স্পষ্ট করে বলতে চাই- এই তালিকার রেশ শেষ হবে না। সবাইকেই তাদের কর্মফল ভোগ করতে হবে।

বিএনপির আন্দোলন প্রসঙ্গে সেতু মন্ত্রী বলেন, বিএনপি চব্বিশ ঘন্টাই আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে বিষোদগার করে। নির্বাচন যতো সামনে আসে বিএনপি ততই বেশি অপপ্রচার চালায়। আন্দোলন ও নির্বাচনে বিএনপি ফেল করেছে। নেতিবাচক রাজনীতির কারনে জনগনের সমর্থন হারিয়েছে বিএনপি।

ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য আব্দুর রহমান। বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাসান মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য নুরুল ইসলাম ঠান্ডু, বেগম আখতার জাহান, প্রফেসর মেরিনা জাহান এমপি, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, নাটোর-১ আসনের এমপি শহিদুল ইসলাম বকুল, নাটোর জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি রত্মা আহমেদ এমপি।

নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস এমপির সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম শিমুল এমপির সঞ্চালনায় স্থানীয় নেতাদের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট সিরাজুল ইসলাম, সাবেক এমপি অ্যাডভোকেট আবুল কালাম আজাদ, সাবেক ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী আহাদ আলী সরকার, নাটোর পৌরসভার মেয়র উমা চৌধুরী জলি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সদর উপজেলা চেয়ারম্যান শরিফুল ইসলাম রমজান ও সৈয়দ মোর্তজা আলী বাবলু, সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুল মালেক শেখ।


অন্যান্য
ভ্রমন