• ১৫ অগ্রহায়ণ১৪২৯  - মঙ্গলবার, নভেম্বর ২৯, ২০২২

‘কাতারে বিশ্বকাপ আয়োজন বড় ভুল’

‘কাতারে বিশ্বকাপ আয়োজন বড় ভুল’

‘গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ’ - শুরু হতে আর দুই সপ্তাহও বাকি নেই। শুরু হবে শিরোপা জেতার জমজমাট লড়াই। ফুটবলপ্রেমীরা দেখবেন স্বদেশি জার্সিতে মেসি, নেইমার, এমবাপ্পে, বেনজেমাদের মতো অনেক যোদ্ধাকে।

সেই গৌরবগাঁথা লিখতে প্রস্তুত কাতারের আটটি স্টেডিয়াম। সবুজ মাঠ, নয়নাভিরাম গ্যালারি আর চোখ ধাঁধানো আলোকসজ্জায় স্টেডিয়ামগুলো ফুটবলপ্রেমীদের স্বাগত জানাচ্ছে।

ঠিক এমন সময়ে এসে কাতার বিশ্বকাপ নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন ফিফার সাবেক সভাপতি সেপ ব্ল্যাটার।

তার মতে, কাতারের মতো ছোট দেশকে বিশ্বকাপ আয়োজন করতে দেওয়া ছিল বড় ভুল। অথচ তিনি ফিফার সভাপতি থাকা অবস্থায়ই ২০২২ বিশ্বকাপের জন্য কাতারকে মনোনীত করা হয়।

অবশ্য নিজের ভুল স্বীকার অকপটেই করেছেন সেফ ব্লাটার।

সুইজারল্যান্ডের গণমাধ্যম তাগেস–আন্তসাইগারের কাছে ব্ল্যাটার বলেছেন, ‘কাতার দেশ হিসেবে খুব ছোট। ফুটবল বিশ্বকাপ অনেক বড় একটা বিষয়। কাতারকে বিশ্বকাপ আয়োজন করতে দেওয়া ভুল ছিল। সে সময়ের ফিফা সভাপতি হিসেবে আমিই এই ভুলের জন্য দায়ী।’

২০১০ সালে ব্ল্যাটার যুগে ১৪–৮ ভোটে যুক্তরাষ্ট্রকে পেছনে ফেলে বিশ্বকাপের আয়োজক হয় কাতার। সে সময় বিষয়টি নিয়ে কম সমালোচনা হয়নি।  কখনো বিশ্বকাপে না খেলা মধ্যপ্রাচ্যের ছোট্ট দেশটি কী করে ৩২ দেশ নিয়ে একটি আসরের আয়োজক হয়ে গেল! তাতে বিস্ময় ছড়ায়।

এরই মধ্যে অভিযোগ উঠেছিল,  ফিফার দুর্নীতিতে কাতারের বিশ্বকাপ আয়োজনের স্বত্ব পেয়েছে।

সেই দুর্নীতির বিষয়ে ব্ল্যাটার বলেছেন, ‘সে সময় ফিফার নির্বাহী কমিটি একটি সিদ্ধান্ত নেয়। তা ছিল বিশ্বের দুই বড় শক্তি যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়ার মধ্যে শান্তির বার্তা ছড়িয়ে দেওয়া। তাই ২০১৮ সালে রাশিয়া ও ২০২২ সালে যুক্তরাষ্ট্রকে বিশ্বকাপ আয়োজনের দায়িত্ব দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। কিন্তু উয়েফা সভাপতি মিশেল প্লাতিনির ওই চার ভোট কাতারের পক্ষে যাওয়ায় সে প্রচেষ্টা ব্যর্থ হয়। বিশ্বকাপের আয়োজক যুক্তরাষ্ট্র নয়, হয়ে যায় কাতার। আর এটাই সত্যি।’


ভ্রমন