• ১৫ অগ্রহায়ণ১৪২৯  - মঙ্গলবার, নভেম্বর ২৯, ২০২২

ইস্টার্ন রিফাইনারির অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা ‘প্রশ্নবিদ্ধ’

ইস্টার্ন রিফাইনারির অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা ‘প্রশ্নবিদ্ধ’

সম্প্রতি বড় দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেয়েছে রাষ্ট্রীয় একমাত্র জ্বালানি পরিশোধনাগার ইস্টার্ন রিফাইনারি লিমিটেড (ইআরএল)। প্রতিষ্ঠানটির মিটারিং সেকশনে আগুন লাগলেও কিছুক্ষণের মধ্যে নিয়ন্ত্রণে আসায় বড় কোনো দুর্ঘটনা ঘটেনি। তবে এ ঘটনায় ইআরএল’র অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। বিশেষ করে মিটারিং তথা বাল্ব সেকশনে আগুনের ঘটনায় নিরাপত্তার প্রশ্ন আরও জোরালো হয়েছে।

জানা গেছে, বিশেষ জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা (কি-পয়েন্ট ইনস্টলেশন-কেপিআই) হলেও সব স্থায়ী কর্মকর্তা-কর্মচারীর ইআরএল’র মিটারিং সেকশনে প্রবেশাধিকার রয়েছে। অনুমতি ব্যতিরেকেই যেকোনো সময় প্রবেশ করতে পারেন তারা। বেশ কিছুদিন আগের তোলা ইস্টার্ন রিফাইনারির মিটারিং সেকশনের কয়েকটি ছবি আসে হাতে। ছবিগুলোতে দেখা যায়, একজন কর্মচারী ভেতরে কী যেন খুঁজছেন। তবে ছবিতে কোনো ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়নি। এরপর ১৫ অক্টোবর আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত হয় বাল্ব সেকশনটি।

এ বিষয়ে ইআরএল’র উপ-মহাব্যবস্থাপক (ইন্সপেকশন অ্যান্ড সেইফটি) এ কে এম নঈমুল্লাহ  বলেন, শনিবার (১৫ অক্টোবর) আগুন লাগার ঘটনায় কিছু মিডিয়ায় মিটারিং সেকশন উল্লেখ করা হয়েছে। মূলত এটিকে বাল্ব সেকশন বলা যেতে পারে। এখান থেকে বিপণনকারী প্রতিষ্ঠানগুলোতে পরিশোধিত জ্বালানি সরবরাহ করা হয়।

ওই সেকশনে প্রবেশাধিকারের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ওখানে রেড জোন চিহ্নিত বাল্ব সেকশনে প্রবেশে কোনো বিধিনিষেধ নেই। প্রতিষ্ঠানের স্থায়ী যে কেউ ওই স্থানে যেতে পারেন। তবে অপারেশনাল কিংবা মেইনটেন্যান্সের জন্য কেউ প্রবেশ করলে অবশ্যই সংশ্লিষ্ট ডিপার্টমেন্ট থেকে নির্ধারিত কার্যাদেশের মাধ্যমে করতে হয় এবং যেতে হয়। এছাড়া অপারেশন এবং ইনস্টলেশন ডিপার্টমেন্ট এটা অপারেট করে। অপারেট করার সময় ব্লাইন্ড করার জন্য মাঝে মধ্যে তাদের সার্ভিস ডিপার্টমেন্টের প্রয়োজন হয়। সার্ভিস ডিপার্টমেন্ট, ফায়ার ডিপার্টমেন্ট এবং এরিয়া অথরিটি ওই স্থানে মূলত কাজ করে। তবে রেড রিবন জোনে যাদের কাজ নেই, তাদের যাওয়ার ব্যাপারে সবসময় নিরুৎসাহিত করা হয়।

ভ্রমন