• ১৫ অগ্রহায়ণ১৪২৯  - মঙ্গলবার, নভেম্বর ২৯, ২০২২

অবশেষে তালেবান ও রাশিয়ার মধ্যে সেই ‘ঐতিহাসিক’ চুক্তি স্বাক্ষরিত

অবশেষে তালেবান ও রাশিয়ার মধ্যে সেই ‘ঐতিহাসিক’ চুক্তি স্বাক্ষরিত

রাশিয়ার কাছ থেকে পেট্রল, ডিজেল, গ্যাস এবং গম সরবরাহের জন্য একটি অস্থায়ী চুক্তি স্বাক্ষর করেছে তালেবান। আফগানিস্তানের ভারপ্রাপ্ত বাণিজ্য ও শিল্পমন্ত্রী হাজি নুরউদ্দিন আজিজি বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এ ব্যাপারে আজিজি বলেছেন, আফগানিস্তানকে  সস্তায় তেল-গ্যাস-গম দেওয়ার বিষয়ে প্রতিশ্রুতি দিয়েছে রাশিয়া।

চুক্তির আওতায় আফগানিস্তানকে প্রতি বছর ১০ লাখ টন পেট্রল, ১০ লাখ টন ডিজেল, পাঁচ লাখ টন প্রাকৃতিক গ্যাস (এলপিজি) এবং ২০ লাখ টন গম সরবরাহ করবে রাশিয়া। তালেবান সরকারের বাণিজ্য মন্ত্রী নিশ্চিত করেছেন বিশ্ব বাজারের তুলনায় কম দামে যাবতীয় সামগ্রী আমদানি করা হবে। কতদিন এই চুক্তি বহাল থাকবে তা পরে ঠিক করা হবে বলেও জানান তিনি। দু’পক্ষ সন্তুষ্ট হলে তবেই চুক্তি দীর্ঘমেয়াদি করা হবে বলে জানা গেছে।

এর আগে, চলতি বছরের আগস্ট মাসে তালেবানের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের নেতৃত্বে একটি সরকারি প্রতিনিধিদল রাশিয়ার রাজধানী মস্কোয় গম, গ্যাস ও তেল সরবরাহের চুক্তি চূড়ান্ত করে।

এদিকে, তালেবানের বাণিজ্য মন্ত্রী চুক্তির ব্যাপারে বিস্তারিত জানালেও  রাশিয়া এই বিষয়ে মুখ খোলেনি। সংবাদ সংস্থা রয়টার্স পুতিনের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণলায়নের সঙ্গে যোগাযোগ করলেও উপ-প্রধানমন্ত্রী আলেকজান্ডার নোভাকের মন্ত্রণালয় এই বিষয়ে মুখ খুলতে রাজি হয়নি।

গত বছরের আগস্টে দ্বিতীয় দফায় ক্ষমতা দখলের পর এই প্রথম বড় ধরনের আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক চুক্তিতে স্বাক্ষর করল তালেবান। তাই বৈশ্বিক ব্যাংকিং সিস্টেমে তালেবানের বিচ্ছিন্নতা কাটাতে এই চুক্তি সহায়ক হতে পারে বলে রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

যদিও এখন পর্যন্ত কোনো দেশ তালেবান সরকারকে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকৃতি দেয়নি। রাশিয়াও আনুষ্ঠানিকভাবে তালেবানের সরকারকে স্বীকৃতি দেয়নি। কাবুলে যে অল্প কয়টি দেশের দূতাবাস চালু রয়েছে তাদের মধ্যে রাশিয়াও রয়েছে।


ভ্রমন