ছুটির দিনে তিন জেলায় সড়কে ঝরল ৯ প্রাণ

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +

সরকারি ছুটির দিনে ফেনী, নাটোর ও ময়মনসিংহে সড়ক দুর্ঘটনায় ৯ জন নিহত হয়েছেন।

শুক্রবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত এ সব দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও অর্ধশতাধিক।

ফেনীর ছানুয়া দিয়ে শুরু সকালে। দিনের মধ্যভাগে নাটোরের গুরুদাসপুর। মাঝে ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ। তিনটি ভিন্ন এলাকার পৃথক সড়কে আজ শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটির দিনটিতে দুর্ঘটনায় প্রাণ গেল নয়জনের। প্রতিনিধিদের পাঠানো প্রতিবেদন-

নাটোর: প্রতিনিধি জানান, দুপুর ১টার দিকে নাটোরের গুরুদাসপুরের কাছিকাটা এলাকায় বাসের ধাক্কায় মোটরসাইকেলের আরোহী তিন ব্যক্তি নিহত হন। ধাক্কা দিয়েই বাসটি ঘটনাস্থল থেকে দ্রুত চলে যায়।

গুরুদাসপুর থানার ওসি দীলিপ কুমার দাস জানান, মোটরসাইকেলের আরোহীরা ঘটনাস্থলেই নিহত হন। বাসটিকে আটক করা যায়নি।

ফেনী: সকাল সাড়ে আটটায় ফেনী সদর উপজেলার ছনুয়ায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে দুর্ঘটনা ঘটে। সেখানে কাভার্ড ভ্যানের ধাক্কায় একটি ছোট ট্রাকের চালক ও তাঁর সহকারী নিহত হয়েছেন।

ফেনীর মুহুরীগঞ্জ হাইওয়ে পুলিশ সূত্র জানায়, একটি কাভার্ড ভ্যান ধাক্কা দেয় ছোট ট্রাকটিকে। ধাক্কায় ট্রাকটি উল্টে যায়। ঘটনাস্থলেই ট্রাকের চালক ও তাঁর সহকারী নিহত হন।

মুহুরীগঞ্জ হাইওয়ে পুলিশের পরিদর্শক মাহবুবুর রহমান আজ সকালে বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ফেনী সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ময়মনসিংহ: প্রতিনিধি জানান, জেলার ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলায় চালক নিয়ন্ত্রণ হারালে একটি বাস রাস্তার পাশের পুকুরে পড়ে গেলে চারজন নিহত হন। এ ঘটনায় আহত হয়েছে অর্ধশতাধিক। আজ সকাল সাড়ে ১০টায় উপজেলার চর হোসেনপুর এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

দুর্ঘটনায় পড়া বাসটি শ্যামল ছায়া পরিবহনের। এটি কিশোরগঞ্জ-ময়মনসিংহ মহাসড়কে চলাচল করে। এক সাইকেল আরোহীকে পাশ কাটাতে গিয়ে সাইকেল নিয়ে পুকুরে পড়ে যায় বাসটি। এতে ঘটনাস্থলেই সাইকেলের আরোহী নিহত হয়েছেন। তাঁর নাম রতন মিয়া। বাকি তিনজনের পরিচয় এখনো জানা যায়নি। তাঁরা হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যান।

আহতদের প্রথমে ঈশ্বরগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে সেখান থেকে গুরুতর আহত ২০ জনকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঈশ্বরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বদরুল আলম খান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

Share.