রোহিঙ্গাদের যেসব ত্রাণ দেবেন বেগম জিয়া

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +

মিয়ানমারের রাখাইন থেকে বাংলাদেশে আসা রোহিঙ্গাদের ত্রাণ সহায়তা দিতে শনিবার (২৮ অক্টোবর) কক্সবাজার যাচ্ছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। রোহিঙ্গাদের মাঝে তিনি যেসব ত্রাণ দেবেন, তার মধ্যে শিশুখাদ্য, চাল ও বস্ত্র রয়েছে। বিএনপির মিডিয়া উইং কর্মকর্তা শায়রুল কবির খান বাংলা ট্রিবিউনকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে, বিএনপির ত্রাণ কমিটির দায়িত্বশীলরা জানান, রোহিঙ্গা শিশুদের মধ্যে বিতরণের জন্য প্রায় ১০ হাজার শিশুখাদ্যের প্যাকেট তৈরি করা হয়েছে। এই শিশুখাদ্য গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র তৈরি করেছে।

সূত্রগুলো জানায়, কয়েকদিন আগে রোহিঙ্গাদের ত্রাণ দেওয়ার বিষয়ে একটি পর্যালোচনা বিষয়ক বৈঠক হয় দলীয় মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলামের সভাপতিত্বে। ওই বৈঠকেই চাল, শিশুখাদ্য ও বস্ত্র দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়।

এ মাসে মহাসচিব নিজেই রোহিঙ্গাদের অবস্থা দেখতে উখিয়ায় গিয়েছিলেন। তার পরিদর্শনের সময়ই বিষয়টি উঠে আসে যে, রোহিঙ্গারা ডাল, সয়াবিন তেল খাদ্য হিসেবে গ্রহণ করে না।

আগামী ৩০ অক্টোবর সোমবার উখিয়ায় চারটি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ত্রাণ বিতরণ করবেন খালেদা জিয়া। স্থানগুলো হলো— বালুখালী-১, বালুখালী-২, হাকিমপাড়া ও ময়নারগুনা। এদিন সকাল ১১ টা থেকে দুপুর দুইটা পর্যন্ত তিনি সেখানে থাকবেন।

উল্লেখ্য, ২৭ অক্টোবর শুক্রবার সন্ধ্যায় বিএনপির ত্রাণ কমিটির সভা শুরু হয়। ওই সভায় ত্রাণ বিতরণ, শৃঙ্খলা রক্ষাসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হয়। ইতোমধ্যে ঢাকা থেকে বৈঠকে যোগ দিয়েছেন কমিটির প্রধান, স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জ্জা আব্বাস। তার স্ত্রী ও মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাস বলেন, ‘শুক্রবার সন্ধ্যায় ত্রাণ কমিটি বৈঠকে বসে। ঠিক কী দেওয়া হবে, সেটা বলতে পারব না। তবে ব্যবহারের জন্য জিনিসপত্র দেওয়া হবে বলে শুনেছি।’

বিএনপির জাতীয় ত্রাণ কমিটির প্রধান সমন্বয়ক ও দলের ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আমার জানা মতে, শিশুখাদ্য ও চাল দেওয়া হবে।’

Share.