সীমিত আকারে প্রশ্ন ফাঁস হয়েছে, পরীক্ষা বাতিল হবে না : শিক্ষামন্ত্রী

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +

এবারের এসএসসি পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁসের প্রমাণ পাওয়া গেছে। তবে এটা খুবই সীমিত আকারে হয়েছে। এতে পাঁচ হাজারেরও কম শিক্ষার্থী সুবিধা পেয়েছে। এ কারণে পরীক্ষা বাতিল করা হবে না। এ তথ্য জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে সচিবালয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী।

এবারের এসএসসি পরীক্ষায় সারা দেশেই প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়েছে বলে অভিভাবকরা অভিযোগ করেন। গণমাধ্যমসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ নিয়ে সংবাদ প্রকাশ হয়ে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে শিক্ষামন্ত্রণালয় এসএসসি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়েছে কি না, তা যাচাই বাছাই করতে ১১ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আলমগীর হোসেনকে আহ্বায়ক করে গঠিত কমিটিতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ ও শিক্ষাবোর্ডগুলোর প্রতিনিধি রাখা হয়। ব্যাপক অনুসন্ধান ও পর্যালোচনা শেষে এ কমিটি সীমিত আকারে প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়েছে বলে প্রতিবেদন পেশ করে। এ কমিটির প্রতিবেদন অনুযায়ী শিক্ষা মন্ত্রণালয় এসএসসি পরীক্ষা বাতিল না করার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয় বলে সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী।

সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের কমিটি শুধু এসএসসি পরীক্ষার একটি সেটের এমসিকিউ পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের তথ্য পেয়েছে। এতে পাঁচ হাজারের কম শিক্ষার্থী সুবিধা পেয়েছে। মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের দাখিল ও কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়নি। এ কারণেই আমরা পরীক্ষা বাতিল না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
এনটিভি

Share.