ভোটের সময় ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বন্ধের প্রস্তাব

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +

আসন্ন গাজীপুর ও খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নানা ধরনের গুজব ছড়িয়ে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টির আশঙ্কায় ভোটের সময়ে ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলো বন্ধ রাখার পরামর্শ দিয়েছেন তারা। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা মনে করছেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নানা ধরনের গুজব ছড়িয়ে পরিস্থিতি খারাপ হতে পারে বলে আশঙ্কা করছে ।

বৃহস্পতিবার (২৬ এপ্রিল) ওই সভায় খুলনার তুলনায় গাজীপুরের পরিস্থিতি নিয়ে বেশি শঙ্কা প্রকাশ করা হয়। এতে বলা হয়, জামিনে থাকা কয়েকজন জঙ্গির (আনসারুল্লাহ বাংলা টিম) বাড়ি গাজীপুরে। তারা সেখানে অবস্থান করছে। এসব জঙ্গিদের ওপর নজরদারি বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়।

জানা গেছে, বৈঠকে দুটি গোয়েন্দা সংস্থার ঊধ্বর্তন কর্মকর্তারা জানান, কোটা সংস্কার আন্দোলনের সময়ে ফেসবুকের গুজব থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাসভবনে হামলা হয়েছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে শিক্ষার্থীদের অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটেছে। গাজীপুর ও খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোটের আগে এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি হতে পারে। ওই দুই সিটিতে প্রচুর সংখ্যক ভাসমান ভোটার রয়েছেন, যারা শিল্প কারখানায় চাকরি করেন। ভোটের মতো স্পর্শকতার সময়ে এমন পরিস্থিতি হলে তা নিয়ন্ত্রণ করা কঠিন হবে। তাই ভোটের সময়ে ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম বন্ধের প্রস্তাব দেন তারা।

তবে এমন আশঙ্কার জবাবে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা তাদের বলেছেন, ‘গুজব বন্ধে কার্যকর মাধ্যম হচ্ছে কাউন্সিলিং। প্রতিটি সংস্থা ও রিটার্নিং কর্মকর্তার পক্ষ থেকে প্রার্থীদের কাউন্সিলিং করা হলে গুজব রটিয়েও পরিস্থিতি অস্থিতিশীল করতে পারবে না।’

বৈঠক শেষে আলোচনার বিষয়ে ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, ‘সোশ্যাল মিডিয়া দিয়ে অনেক ধরনের প্রোপাগান্ডা চালানো হয়। গুজব ছড়ানো হয়। এটা কীভাবে নিয়ন্ত্রণ করা যায়, সে বিষয়ে প্রস্তাব এসেছে। নির্বাচন কমিশন বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে বিবেচনায় নিয়েছেন। বিটিআরসি, মোবাইল অপারেটরসহ সোশ্যাল মিডিয়া যারা নিয়ন্ত্রণ করে কমিশন তাদের সঙ্গে বৈঠক করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।’

ভোটের সময়ে মোবাইল ফোন বা ফেসবুক বন্ধ রাখা হবে কিনা- এমন প্রশ্নের জবাবে হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, ‘সম্প্রতি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ঘটনায় ফেসবুক ব্যবহার করে কীভাবে গুজব রটিয়ে অশান্তি সৃষ্টি করা হয়েছে সেটাকে উদাহরণ হিসেবে টেনে নিয়ে আলোচনা হয়।’

Share.