খালেদা জিয়াকে মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী ভাবতে ঘৃণা হওয়া শমী কায়সারের জন্ম এক বিরাট রহস্য!

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +

“বিশেষ পর্ব” ইতিহাসের কাঠগড়ায় আওয়ামীলীগ।।

বুদ্ধিজীবীর সন্তান বলে বলে মুখে ফেনা তোলা শমী কায়সারের জন্ম এক বিরাট রহস্য এবং বিরাট ঘাপলার সৃষ্টি কারক!

বুদ্ধিজীবী শহীদুল্লাহ কায়সারের মেয়ে দাবি করা শমী কায়সার কে আমি জারজ সন্তান হিসেবে ধরে নিবো নাকি আওয়ামী লীগের সাবেক সাংসদ, লেখিকা ও অধ্যাপিকা পান্না কায়সারের বিবাহ বহির্ভূত অনাগত সন্তান হিসেবে ধরে নিবো এর দায়িত্ব আপনাদের উপর ছেড়ে দিলাম।

১৯৬৯ সালে বিয়ে হয় বিশিষ্ট বুদ্ধিজীবী শহীদুল্লাহ কায়সার ও অধ্যাপিকা পান্না চৌধুরীর। তখন পান্না চৌধুরীর বয়স মাত্র ২২ বছর। শহীদুল্লাহ কায়সার কে গুম করা হয় ১৯৭১ সালের ১৪ই ডিসেম্বর।

এবার হিসেবে করুন শহীদুল্লাহ কায়সার এবং পান্না কায়সারের দাম্পত্য জীবনের।
এক্ষেত্রে শমী কায়সারের জন্মদিন ১৯৬৯ সালের ১৫ই জানুয়ারি থেকেই না হয় হিসাব করি তাহলে শহীদুল্লাহ কায়সারের সাথে তার স্ত্রীর সংসার মেয়াদ থাকে প্রায় দুই বছর। এই দুই বছরে শহীদুল্লাহ কায়সারের দুইটি সন্তান হয়।

এক, শমী কায়সার, জন্ম ১৫ জানুয়ারি ১৯৬৯ সালে।

দুই, অমিতাভ কায়সার প্রকাশ অমি কায়সার। যার জন্মদিন সম্পর্কে আমি কোন তথ্য খুজে পাইনি।

অনেকেই মনে করতে পারেন অমিতাভ শহীদুল্লাহ কায়সারের সন্তান নয়, না অভিতাভ শহীদুল্লাহ কায়সার এরই সন্তান।

এবার বিচারের ভার আপনাদের উপর।

১৯৬৯ সালে যদি শহীদুল্লাহ কায়সার পান্না চৌধুরী কে বিয়ে করে থাকেন, তাহলে ৬৯ সালের ১৫ই জানুয়ারি কিভাবে শমী কায়সার জন্ম গ্রহন করে?

১৯৬৯ _১৯৭১ সালের ১৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত প্রায় দুই বছরে কিভাবে পুরোপুরি দুইটি সন্তান কে জন্ম দিতে পারে শহীদুল্লাহ কায়সার? প্রশ্ন থেকে যায় একেমং বাবা?

এখন আমরা কি বলবো? শমী কায়সার বুদ্ধিজীবী শহীদুল্লাহ কায়সারের সন্তান নাকি পান্না চৌধুরীর অনাগত, অবৈধ জারজ সন্তান।

বন্দুরা তোমাদের মনে আছে কিনা জানিনা, অধ্যাপিকা পান্না কায়সার ২০১৫ সালের ফেব্রুয়ারি তে শাহাবাগে গনজাগরন মঞ্চের ২য় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে বলেছিলো-

” খালেদা জিয়াকে মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী ভাবতে ঘৃণা হয় ”

আজ আমারও বলতে ঘৃণা হয় অধ্যাপিকা পান্না কায়সার, আপনি পিতৃ পরিচয়হীন বিবাহ বহির্ভূত এক জারজ সন্তান শমী কায়সারের ‘ মা ‘।

শহীদুল্লাহ কায়সারের সন্তান না হয়েও শমী কায়সার নিজেকে বুদ্ধিজীবীর সন্তান দাবি করে ফায়দা হাসিল করলেও শহীদুল্লাহ কায়সারের আসল সন্তান অমিতাভ কায়সার এক্ষেত্রে ধরতে গেলে সামনেও আসে না।

জাতির উচিত মাত্র ১৪ দিন পেটে ধরে সন্তান জন্ম দেওয়া অধ্যাপিকা পান্না কায়সার কে ” মাদার অব অষ্টমাশ্চর্য ” ঘোষণা করার। বুদ্ধিজীবীর সন্তানদের উচিত এই বেজন্মা পিতৃপরিচয়হীন বন্ধ্যা “শমী রহমান “কে বয়কট করা।

শহীদুল্লাহ কায়সার, শমী কায়সার, অমি কায়সারের একটি ছবি দিলাম আপনাদের বিচার সুবিধার্থে। ছবি দেখে কি মনে হয় আপনাদের? এই দুইটা বাচ্চাই প্রায় দুই বছরে জন্ম নিয়ে একটা আরেকটাকে কোলে নিয়ে খেলছে।

নবাব সাহেব

newsagency

Share.