যৌন হয়রানি থেকে বাঁচতে আইআইটি ছাত্রের আত্মহত্যা

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +

ভারতের দিল্লিতে অবস্থিত ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি- আইআইটি’র মাস্টার্সের এক ছাত্র আত্মহত্যা করেছেন। যৌন হয়রানির গ্লানি থেকে বাঁচতে তিনি আত্মহত্যা করেছেন বলে একটি চিরকুটে লিখে গেছেন।

শুক্রবার সকালে আইআইটি হোস্টেলের কক্ষ থেকে নারু গোপালের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। খবর: এনডিটিভি ও জিনিউজ।

পশ্চিমবঙ্গের হুগলীর ত্রিবেণীর বাসুদেবপুরের বাসিন্দা ছিলেন নারু গোপাল। ছোট থেকেই অত্যন্ত মেধাবী। আইআইটি-তে কেমেস্ট্রির মাস্টার্সের ছাত্র ছিলেন তিনি।

জানা গেছে, গত ১০ এপ্রিল রাতে ঘুমের ওষুধ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন নারু গোপাল। তবে সেই যাত্রায় হাসপাতালে চিকিত্সার পর সুস্থ হয়ে ওঠেন তিনি। হাসপাতাল থেকে নারু গোপালকে প্রথমে নিজের বাড়িতে নিয়ে গিয়েছিলেন তার ভাই।

বৃহস্পতিবার নারুগোপালকে ফের হোস্টেলে রেখে যান ভাই। পরদিন শুক্রবার সকালেই হোস্টেল কক্ষ থেকে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত নারু গোপালের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

ওই কক্ষ থেকে একটি সুইসাইড নোটও উদ্ধার করেছে পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে, সুইসাইড নোটে যৌন নির্যাতনের কথা উল্লেখ করেছেন নারু গোপাল।

তিনি লিখেছেন, ছোটবেলা থেকেই যৌন নির্যাতনের শিকার হতে হয় তাকে। এনিয়ে সম্প্রতি মানসিক অবসাদেও ভুগছিলেন।

যদিও আত্মঘাতী ছাত্রের পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, তার যৌন হেনস্থার কথা বিন্দুবিসর্গ কিছু জানতেন না তারা।

পুলিশ আরো জানিয়েছে, সুইসাইড নোটে নির্দিষ্ট কয়েকজনের নাম উল্লেখ করে তাদের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ করেছেন নারু গোপাল। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ইতোমধ্যেই পস্কো আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এমএসআই

Share.