Breaking News
Home / জাতীয় / ড. কামাল হোসেন বললেন বঙ্গবন্ধুর ছবি, নামের অপব্যবহার বন্ধ করতে হবে

ড. কামাল হোসেন বললেন বঙ্গবন্ধুর ছবি, নামের অপব্যবহার বন্ধ করতে হবে

গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন বলেছেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে ছবি ছাপিয়ে মাদকদ্রব্য ব্যবসায়ীরা পোস্টার করেন। এটা সহ্য করা যায় না। বঙ্গবন্ধুর ছবি, তাঁর নাম কেউ যেন অপব্যবহার না করে, এটা এখন জাতীয় দাবি।

আজ বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনা সভায় ড. কামাল হোসেন এসব মন্তব্য করেন। ‘বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস’ উপলক্ষে গণফোরাম আলোচনা সভাটির আয়োজন করে।

ড. কামাল হোসেন বলেন, একজন মাদকদ্রব্য ব্যবসায়ী যদি বঙ্গবন্ধুর ছবি দিয়ে পোস্টার ছাপায়, তাহলে সেটি তাঁকে অপমান করা হয় কি না? এভাবে জাতির পিতাকে অপমান করা ঠিক নয়। তিনি বলেন, তাঁর ছবি একজন মাদক ব্যবসায়ীর পোস্টারে। একজন খুনি, সন্ত্রাসী তার পোস্টারে বঙ্গবন্ধুর ছবি ব্যবহার করে! এটা কী রকম খারাপ কাজ! জাতির পিতাকে এভাবে কেউ অপমান করতে পারে না, এটা বন্ধ করতে হবে।

বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ও আদর্শ সম্পর্কে ড. কামাল হোসেন বলেন, বঙ্গবন্ধু সব সময় দেশ ও দেশের মানুষকে প্রাধান্য দিতেন। তাঁর স্বপ্ন এখনো বাস্তবায়ন হয়নি। তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু তো জীবন দিয়ে গেলেন। যেসব জিনিস করা যাবে না—নিরীহ মানুষকে খুন করা যাবে না, সন্ত্রাস করা যাবে না এবং ধর্ষণ করা যাবে না। যত রকমের কুকর্ম—সবই তো তিনি নিষেধ করেছেন।’

ছাত্রলীগের কর্মকাণ্ডের সমালোচনা করে ড. কামাল হোসেন বলেন, ছাত্রলীগের নামে কী কী ধরনের খবর বের হয়। ভালো কাজ করলে তো সবাই খুশি হয়। কিন্তু দেখা যায় খুনের খবর। সেই খুনও কে করছে? এক নেতৃস্থানীয় লীগ আরেক নেতৃস্থানীয় লীগকে খুন করেছে। তিনি বলেন, আধিপত্য বিস্তারের জন্য খুন হচ্ছে। এটা বন্ধ করবে কে? আধিপত্য বিস্তারের এসব বিষয় সুস্থ গণতন্ত্রের পরিপন্থী।

দেশ নিয়ে আশা প্রকাশ করে ড. কামাল হোসেন বলেন, এই যে কৃষক ন্যায্যমূল্য না পেয়েও শস্য উৎপাদন বন্ধ করেন না। তৈরি পোশাকশ্রমিকেরা তাঁদের দাবি করা ন্যূনতম মজুরি পান না, তবু বৈদেশিক আয় বাড়ছে। এঁদের মানুষ হিসেবে শ্রদ্ধা করি। তিনি বলেন, ‘মানুষ আমাদের এখানে বেশি এখনো আছে বলে আমি খুব আশাবাদী। নিরাশ হওয়ার কোনো কারণ নেই। কিছু বদ আছে। বদদের দেখে নিরাশ হওয়ার কিছু নেই। বদ তো সব দেশেই থাকে। দুঃখজনক হলো আমরা বদ থেকে মুক্ত হতে পারিনি। যারা টাকা পাচার করছে, হান্ড্রেড পার্সেন্ট (শতভাগ) এদের বদ বলা যায়। যারা শ্রমিককে তাদের ন্যায্য পাওনা থেকে বঞ্চিত করে, তাদের বদ বলা যায়।’ সবাইকে জাতির স্বার্থে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানিয়ে দেশকে এগিয়ে নেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মোহসীন মন্টু, নির্বাহী সভাপতি সুব্রত চৌধুরী, সহসভাপতি জগলুল হায়দার আকন্দ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ও ম শফিকুল্লাহ, শিক্ষাবিষয়ক সম্পাদক বিলকিস বাণু প্রমুখ।

এখানে মন্তব্য করুন
শেয়ার করতে আপনার একাউন্ট আইকণে ক্লিক করুন

Check Also

‘পুলিশ অ্যান্টি টেররিজম’ সরল বিশ্বাসে অপরাধের দায়মুক্তি চায়!

সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দমনে গঠিত ‘পুলিশ অ্যান্টি টেররিজম’ ইউনিটের জন্য খসড়া বিধিমালা প্রণয়ন করেছে পুলিশ …